ভারতের ভূগোল(Geography Of India)Part-12
Published Date : 21-06-16
88 Views

ভূগোলের জেনারেল নলেজ

  • কোন রাজ্যের মধ্য দিয়ে কর্কটক্রান্তি রেখা অতিক্রম করেনি – ওড়িশা।
  • জলপাইগুড়ি শহর কোন নদীর তীরে অবস্থিত – তিস্তা ও করলা নদীর।
  • সুন্দরবনকে নিম্নলিখিত বৈশিষ্ট্যের জন্য ‘World Heritage Site’ নামে নথিভূক্ত করা হয়েছে – ম্যানগ্রোভ বনভূমিরজন্য।
  • ভারতের কয়লা সঞ্চয়ের প্রায় 80% অবস্থান করছে – দামোদর উপত্যকায়।
  • ভারতের উচ্চ গাঙ্গেয় সমভূমির ভূর হল একপ্রকার – বায়ুপ্রবাহ দ্বারা সঞ্চিত বালির তরঙ্গায়িত ভূমি।
  • আন্দামান দ্বীপপুঞ্জের সর্বোচ্চ শৃঙ্গ – স্যাডেল শৃঙ্গ।
  • গঙ্গা নদীর সক্রিয় ব-দ্বীপ ভারতে এই স্থানে রয়েছে – উত্তর ও দক্ষিণ চব্বিশ পরগণা।
  • ভারতের উচ্চতম শৃঙ্গ K২এই নামেও পরিচিত  – গডউইন অস্টিন।
  • চিলকা হ্রদ হল – নোনা জলের হ্রদ।
  • মুর্শিদাবাদ জেলাকে দুভাগে ভাগ করেছে – ভাগীরথী নদী।
  • পশ্চিমবঙ্গের সর্বাধিক উন্নতমানের কয়লা হল – Bituminous (বিটুমিনাস)।
  • যে কৃষ্ণলাভা মৃত্তিকায় সর্বাধিক উন্নত তুলা চাষ হয় তা হল – রেগুর(Regur)।
  • ভারতীয় সময় (IST) গণনা করা হয় – ৮২°৩০’E দ্রাঘিমা রেখা অনুযায়ী যা Allahabad -এ অবস্থিত।
  • পশ্চিমবঙ্গের বর্ষার মূল কারণ – ভারতীয় মৌসুমী বায়ুর বঙ্গোপসাগরীয় শাখা।
  • পশ্চিমবঙ্গের রাজধানীর অবস্থিতি কোথায় – কর্কটক্রান্তির নিকট।
  • কলকাতা এবং লণ্ডনের মধ্যে সময়ের পার্থক্য হচ্ছে – কলকাতা পাঁচ ঘন্টার বেশী এগিয়ে।
  • ফারাক্কা ব্যারেজ নির্মাণের প্রধান উদ্দ্যেশ ছিল – গঙ্গার নিম্ন প্রবাহের মাত্রা বৃদ্ধি।
  • পশ্চিমবঙ্গের উত্তর প্রবাহী নদী হল – তিস্তা, জলঢাকা, রায়ডাক।
  • বায়ুমণ্ডলের কোন স্তরে ওজোন অতিবেগুনি রশ্মি শোষণ করে – স্ট্র্যাটোস্ফেয়ার।
  • নব গঠিত অন্ধ্রপ্রদেশ রাজ্যের রাজধানীর নাম হলো – অমরাবতী।
  • পৃথিবীর মোট স্থলভাগের অংশ হিসেবে ভারতের ভাগ হলো – ২.৪ শতাংশ।
  • ভারতে সর্বপ্রথম খনিজ তেল আবিষ্কৃত হয় যেখানে, সেটি হলো – দিগবয়।
  • টোটো’ হল একপ্রকার আদিম আদিবাসী, যাঁদের পাওয়া যাবে যে রাজ্যে সেটি হলো – পশ্চিমবঙ্গ।
  • ফারাক্কা ব্যারেজ নির্মাণের প্রধান কারণ কী ছিল – হুগলি নদীতে জলের যোগান বৃদ্ধি।
  • এলাকা ও জনসংখ্যার ভিত্তিতে ভারতের সর্বাধিক বৃহত্তম নগরপুঞ্জ হলো – মুম্বাই।
  • ভারতের সবচেয়ে বেশি এলাকা জুড়ে রয়েছে – পলি মৃত্তিকা।
  • সাধারণত গ্রীষ্মকালীন মৌসুমিবায়ু দক্ষিণবঙ্গে এসে পৌঁছায় – জুন মাসের ৫ – ১০ তারিখের মধ্যে।
  • মুল্লাপেরিয়ার বাঁধ অসন্তোষের কারণ যাদের মধ্যে – তামিলনাড়ু ও কেরল।


Quiz 

Free Quiz

0 0 votes
Article Rating
guest
0 Comments
Inline Feedbacks
View all comments